আল্প আরসালান ভলিউম ৩১ বাংলা সাবটাইটেল | Alp Arsalan Volume 31 Bangla Subtitle

আল্প আরসালান ভলিউম ৩১ বাংলা সাবটাইটেল  | Alp Arsalan Volume 31 Bangla Subtitle 




আল্প আর্সালান বুয়ুক সেলজুক ভলিউম ৩০ এর শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। শুরুতে দেখা যায় আল্প আর্সালান টেকফুরের দূর্গে প্রবেশ করে। তিনি সত্য প্রকাশ করার জন্য বনিককে সবার সামনে হাজির করেন। সবার সমানে বনিককে সত্যটা প্রকাশ করতে বলা হয়।

কিন্তু টেকফুরের স্বর্ন মুদ্রার লোভি বনিক সবার সামনে মিথ্যা বলে। সে সবার সামনে প্রকাশ করে হত্যা কান্ডের জন্য আল্প আর্সালান দায়ি। তার নির্দেশেই ব্যাবসায়ীদের হত্যা করা হয়।


তার এ কথা বলার পর সেখানকার পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকে। সেখানে উপস্থিত জনগন আল্প আর্সালানকে মিথ্যাবাদি বলে চিৎকার করতে থাকে। এবং এ হত্যার জন্য তার শাস্তি দাবি করে।
পরিস্থিতি খারাপ দেখে আল্প আর্সালান সেখান থেকে চলে আসে।

লোভী বনিক তার কাজের পুরস্কারের জন্য টেকফুরের কাছে গেলে টেকফুর তাকে হত্যা করে। এবং সৈনিকদের তার লাশ গুম করে ফেলতে বলে।

এদিকে সেফেরিয়া হাতুন পালানোর চেষ্টার কথা তার বাবা ইউসুফ আর্সালানের সাথে শেয়ার করে। সেফেরিয়া হাতুন কোন ভাবেই আল্প আর্সালানকে বিয়ে করতে রাজি নয়। এবং সে তার বাবাকে বিয়ের সময় পালানোর পরিকল্পনার কথা জানায়। কিন্তু তার বাবা তার এ পরিকল্পনায় সাড়া না দিয়ে তাকে আল্প আর্সালানকে বিয়ে করতে পরামর্শ দেয়।

অন্যদিকে ভাসপুরাকানের জনগন সবাই একত্রিত হয়ে বিক্ষোভ করে। ব্যাবসায়ীদের হত্যা করার কারনে তাদেন মালামাল জমা হয়ে আছে। তারা সেগুলো বিক্রি করা নিয়ে চিন্তিত। তাদের সাথে এনাল বের কথা কাটাকাটি চলে। একপর্যায় এনাল বে তাদের একজনকে আঘাত করার চেষ্টা করলে এমন সময় আল্প আর্সালান এসে ইনাল বে’কে থামায়। আল্প আর্সালান জনগনকে প্রতিশ্রতি দেয় তাদের সকল মালামাল তিনি ক্রয় করে নিবেন।


ক্রয়কৃত এ সকল মালামাল ইনাল বে কতৃক গেকতের কাছে পাঠানোর সিন্দান্ত নেয় আল্প আর্সালান বে। চারি বে ইনাল বে’কে আনাতোলিয়ায় এ সকল মালামাল নিয়ে যেতে প্রস্তাব করলে ইনাল বে তা প্রকাশ্যে অস্বিকার করে। এবং তিনি রাগান্বিত হয়ে সেখান থেকে বের হয়ে যায়।

ইনাল বে’র সাথে রাস্তায় আল্প আর্সালান দেখা করে এবং তাকে অনাতোলিয়ায় যাওয়ার প্রস্তাব দিলে সে প্রচুর রেগে যায়। সে কোন ভাবেই আল্প আর্সালানকে সহ্য করতে পারছিল না। ইনাল বে খুব উত্তেজিত হয়ে আল্প আর্সালানের উপর তার রাগের কথা বলে।

প্রাসাদে ফিরে যদিও ইনাল বে মনে করে তার যাওয়াটাই উত্তম ছিলো। কিন্তু তার এ ভাল ধারনাকে আর সামনের দিকে এগোতে দেন না তার স্ত্রী ওখে হাতুন। বরং তিনি বিভিন্ন ভাবে কথা বলে ইনাল বে’কে উসকে দেন।

সেফেরিয়া হাতুন পালানোর পরিকল্পনার বিষয়ে তার বান্ধবী জারান নিষেধ করে। সেফেরিয়া তার নিষেধের কথা জানতে চাইলে, জারান তার বাবার হুমকির কথা বলেন। সেফেরিয়া হাতুন ভোরেই পালানোর পরিকল্পনা করে এবং জারানকে ঘুমের ঔষধ খেয়ে ঘুমাতে বলে।যাতে কেউ তাকে সন্দেহ করবে না।


গুপ্তচরের কাজে আল্প আর্সালান গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব দেয় রাজেনের উপর। তার দীর্ঘ বিস্বাস রাজেন তার কাজে সফল হবে এবং তাকে সব খবর জানাবে


এদিকে ওয়াং বনিকের লাশ লুকানোর চেষ্টায় আলেকজান্ডারের সৈনিকরা আর অন্যদিকে রাজেনকে দায়িত্ব দেওয়া হয় তার লাশ খুজতে।

গেভের হাতুন এবং আরবাজকান যখন লুকিয়ে প্রেম করছিল তখনি তারা সেফেরিয়ে হাতুনের কথা শুনতে পায়। সেফেরিয়ে হাতুন পালানোর জন্য চেষ্টা করছিল। কিন্তু সৈনিক তাকে বাইরে যেতে নিষেধ করে। তিনি বিভিন্ন অজুহাত দেখালেও সৈনিক তাকে যেতে দিচ্ছিল না। এমন সময় আল্প আর্সালান সেখানে হাজির হন।

তিনি জানতে চান কেন সেফেরিয়া হাতুন বাইরে যাবে।কর্তব্যরত সৈনিক বলে ইউসুফ আর্সালান তাকে বাইরে যেতে নিষেধ করার পরও সে বাইরে জেতে জোর করছিল। আল্প আর্সালান বিষয়টা আন্দাজ করতে পেরে সেফেরিয়া হাতুনের সকল অজুহাত ফিরিয়ে দেন। এবং তাকে তার কক্ষে ফিরে যেতে আদেশ করেন।

পরের দৃশ্যে সবার প্রিয় আলপাগুতকে অত্যাচারের দৃশ্য দেখা যায়। তারা কোন ভাবেই আলপাগুতের মুখ থেকে কথা স্বিকার করাতে পারে না।

ইয়াবগুলু বসতিতে আল্প আরসালান তার ক্রয় করা জিনিসপত্র পাঠায়। তখন সুলতান তুঘরুল বে’র কাছ থেকে একটা চিঠি আসে। চিঠিতে আল্প আর্সালানের বিয়ের উপহার হিসাবে একটা ঘোড়ার কথা উল্লেখ্য করেন সুলতান।

আল্প আর্সালান বুয়ুক সেলজুক এপিসোড ৩০ এর প্রথমার্ধের শেষের দিকটা ছিল টান টান উত্তেজনা। একদিকে ব্যাবসায়ী রাজেন গম ভর্তি ভ্যান নিয়ে টেকফুরের দুর্গে প্রবেশ করে। অন্যদিকে সেফেরিয়ে হাতুন শস্য ভর্তি ভ্যানে নিজেকে লুকিয়া রাখে। সেফেরিয়ে হাতুনের পালানোর পরিকল্পনা ওখে হাতুন দেখে ফেলে।

বনের ভিতর দিয়ে ভ্যান যাওয়ার সময় সেফেরিয়ে হাতুন লাফ নিয়ে নেমে পরে। অন্যদিকে ওয়াং বনিককে হত্যা করার দায় আলেকজান্ডার আল্প আর্সালানের উপর চায়ে দেয়। এতে সকল ব্যাবসয়ীরা উত্তেজিত হয়ে পরে। তবে এখানে খুশির বিষয় হল ব্যাবসায়ী রাজেন প্রাথমিক ভাবে টেকফুরের বিস্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

এদিকে বনের ভিতর সেফেরিয়ে হাতুন সেরদারের ঘোড়া নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনা দ্রুত সেরদার গিয়ে আল্প আর্সালানকে জানায়। আল্প আর্সালান দ্রুত ঘেরা নিয়ে বের হয়ে সেফেরিয়ে হাতুনের পথ আটকায়।


প্রথমে,  ← https://onubadmedia.xyz/wp-content/plugins/aio-video-downloader/download.php?source=odnoklassniki&media=Mw==&sid=dd76974c904f7ca51763fda1febd82a3e3906759 ← এই .লিংকটি.কপি করে নিয়ে যেকোনো ব্রউজারে যেমনঃ- Chrome , UC-browser ইত্যাদিতে সার্চ করলেই মুভিটি পেয়ে যাবেন ।



Previous Post Next Post

Multi

Contact Form