কর্ণফুলী টানেল (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল) সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ২০২২


কর্ণফুলী টানেল (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল) সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান ২০২২




★ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল (কর্ণফুলি টানেল), চট্টগ্রাম



_ এটি কর্ণফুলী নদীর তলদেশে নির্মিত দেশের প্রথম টানেল।

_ অর্থব্যয়ে সরকারের সহযোগী: চায়না এক্সিম ব্যাংক

_ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান: চায়না কমিউনিকেশন অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন কোম্পানি (সিসিসিসি)

_ প্রকল্প ব্যয়: ১০,৩৭৪ কোটি টাকা

_ প্রকল্পের মোট দৈর্ঘ্য: ৯.৩৯ কি.মি.

_ মূল টানেলের দৈর্ঘ্য: ৩.৩২ কি.মি.

_ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে: ২০২২ সালের ডিসেম্বরে

_ বিশ্বের ৪৭টি দেশে পানির নিচে টানেল তৈরি হচ্ছে।

_ টানেল চট্টগ্রাম বন্দরের সঙ্গে আনোয়ারা উপজেলাকে সংযুক্ত করবে।

_ চালুর বছরে ৬৩ লাখ গাড়ি চলাচল করবে। সে হিসাবে দিনে চলবে ১৭ হাজার ২৬০টি গাড়ি।

_ বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মিত হলে দেশের জিডিপি ০.১৬৬ শতাংশ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

_ কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের ৪০ কি.মি. দূরত্ব হ্রাস করবে।

_ চীনের সাংহাই নগরীর মতো চট্টগ্রাম হবে ওয়ান সিটি সিটি-টু টাউন।

_ কক্সবাজারকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অর্থনৈতিক হাব হিসেবে গড়ে তুলবে।

_ ২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিন পিং প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

_ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টানেল নির্মাণের কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন।



Previous Post Next Post

Multi

Contact Form